৩টি রেকর্ডে মধ্য দিয়ে ১৫১ রানে জয় পেলো ভারত

সাত বছর পর লর্ডস টেস্টে ইংল্যান্ডকে ১৫১ রানে হারিয়ে চলতি সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল বিরাট কোহলির ভারত।

ভারতীয় দল ইংল্যান্ডে শেষ টেস্ট সিরিজ জিতেছে ২০০৭ সালে। চলতি সিরিজে নিশ্চিত জয় হাতছাড়া হয়েছিল ট্রেন্ট ব্রিজে বৃষ্টির কারণে।

আজ হাতে ছিল ৬০ ওভার। তার মধ্যেই ইংল্যান্ডকে দুরমুশ করলেন ভারতীয় পেসাররা। ১২০ রানেই গুটিয়ে গেল ইংল্যান্ড। শেষ তিন উইকেটও পড়ল ১২০ রানেই।

ভারত ২৭১ রানের লিড নিয়ে ইনিংস ডিক্লেয়ারের পর চা বিরতির আগেই চার উইকেট হারায় ইংল্যান্ড।

প্রথম দশ বলের মধ্যে ১ রানে দুই ওপেনারকে হারায় জো রুটের দল। ররি বার্নস ও ডস সিবলি দুজনেই ফেরেন শূন্য রানে।

৪৪ রানের মাথায় হাসিব হামিদের উইকেটটি তুলে নেন ইশান্ত শর্মা। হামিদ ৯ রানে লেগ বিফোর হন। লাঞ্চের ঠিক আগে জনি বেয়ারস্টো ২ রান করে ইশান্তের দ্বিতীয় শিকার হন।

মাইকেল গফ আউট দেননি, ভারত রিভিউ নেওয়ায় সিদ্ধান্ত বদলাতে বাধ্য হন ইংল্যান্ডের আম্পায়ার। চা বিরতিতে ইংল্যান্ডের স্কোর ছিল ৪ উইকেটে ৬৭।

হাওড়া জেলা তৃণমূলের সাংগঠনিক পদ থেকে সরলেন দুই ‘রায়’, নতুন যাঁরা এলেন দায়িত্বেহাওড়া জেলা তৃণমূলের সাংগঠনিক পদ থেকে সরলেন দুই ‘রায়’, নতুন যাঁরা এলেন দায়িত্বে

চা বিরতির পরই সবচেয়ে বড় ধাক্কা খায় ইংল্যান্ড। জসপ্রীত বুমরাহ-র তৃতীয় বলেই বিরাট কোহলির হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক জো রুট।

তিনি করেন ৬০ বলে ৩৩। এরপর ৩৯তম ওভারের প্রথম দুই বলে মঈন আলি ও স্যাম কারানের উইকেট তুলে নেন মহম্মদ সিরাজ। মঈন করেন ১৩। ৯০ রানে ৭ উইকেট হারানোর পর অলি রবিনসনকে নিয়ে হার বাঁচানোর মরিয়া লড়াই চালাতে থাকেন জস বাটলার।

৫০.৫ ওভারে বুমরাহ অলি রবিনসনের বিরুদ্ধে জোরালো লেগ বিফোরের আবেদন করেন। এবার অপর ইংরেজ আম্পায়ার রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ আউট দেননি। কিন্তু রিভিউ নিয়ে এবারও সফল হন বিরাট।

রবিনসন ৯ রানে আউট হওয়ার তিন বল পরেই জস বাটলারের উইকেট তুলে নেন সিরাজ। ১২০ রানেই নবম উইকেট পড়ে ইংল্যান্ডের। ২৫ রান করে কট বিহাইন্ড হন বাটলার।

শেষে অ্যান্ডারসন যখন নামেন তখনও বাঁচতে ৮.৪ ওভার দরকার ছিল ইংল্যান্ডের। ওভারের পঞ্চম বলেই অ্যান্ডারসনের স্টাম্প ছিটকে দিয়ে ভারতকে স্মরণীয় জয় এনে দেন মহম্মদ সিরাজ। দ্বিতীয় ইনিংসে ৩২ রানে ৪ উইকেট নিলেন তিনি।

এদিন ভারতের জয়ের মধ্য দিয়ে হয়েছে রেকর্ডে ছড়াছরি।

১। ভারতের ৩য় অধিনায়ক হিসেবে লর্ডসের মাঠে জয়ের স্বাদ পেলো ভিরাট কোহলি।

২। ২য় বারের মত ভারত টেস্টে ২ ইনিংসে কোনো স্পিনার উইকেট পায়নি।

৩। প্রথমবারের মত জো রুট সেঞ্চুরি করার পরেও ইংল্যান্ড পরাজিত হয়েছে।

Related Posts

2 thoughts on “৩টি রেকর্ডে মধ্য দিয়ে ১৫১ রানে জয় পেলো ভারত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *