হারের পর রিজওয়ানকে আলিঙ্গন বিরাটের, মন জিতল ক্রিকেট বিশ্বের

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে দাঁড়াতে পারেনি তাঁর দল। ম্যাচের শেষে পাকিস্তানের সেই জয়ের অন্যতম কারিগর মহম্মদ রিজওয়ানকে বিরাট কোহলি যেভাবে জড়িয়ে ধরেছেন, তা মন জিতে নিয়েছে নেটিজেনদের।

যদিও সেই ছবিতে অনেকেই খুশি হননি। বরং এরকম বড়সড় হারের পর কেন হাসিমুখে রিজওয়ানকে জড়িয়ে ধরেছেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তাঁরা।

রবিবার দুবাইয়ে ১৩ বল বাকি থাকতেই ১০ উইকেটে ভারতকে হারিয়ে দেয় পাকিস্তান। ৫৫ বলে ৭৯ রানে অপরাজিত থাকেন রিজওয়ান। যে জয়ের ফলে বিশ্বকাপে প্রথমবার ভারতকে হারানোর স্বাদ পেয়েছে পাকিস্তান।

স্বভাবতই জয়সূচক শটের পর বাবর আজমের সঙ্গে উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন রিজওয়ান। তারপরই রিজওয়ানদের শুভেচ্ছা জানান ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট। হাসিমুখে রিজওয়ানকে জড়িয়ে ধরেন। বিরাটকে হাসিমুখে জড়িয়ে ধরেন রিজওয়ানও।

সেই আলিঙ্গনের ছবি এবং ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। বলিউডের গীতিকার বরুণ গ্রোভার সেই ছবি পোস্ট করে টুইটারে লেখেন,

‘কোহলি এবং রিজওয়ানের মধ্যে কী দারুণ মুহূর্ত!’ এক নেটিজেন ফেসবুকে লেখেন, ‘এই ছবিটা ক্রিকেট এবং স্পোর্টসম্যানশিপের প্রতি আমার বিশ্বাস গড়ে তুলেছে।’ টুইটারে অপর এক নেটিজেন বলেন, ‘কতবার হৃদয় জিতবেন কোহলি?’ পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের তরফেও টুইটারে বলা হয়, ‘ক্রিকেটের স্পিরিট।’

সেই সম্প্রীতির বার্তার মধ্যেই অনেকে বিরাট-রিজওয়ানের আলিঙ্গন নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করতে থাকেন। প্রশ্ন করতে থাকেন, অধিনায়ক হিসেবে এরকম ‘দাগ’ লেগে যাওয়ার পরও কীভাবে হাসতে পারেন বিরাট? এক নেটিজেন লেখেন, ‘কোহলির চোখেমুখে দুঃখের লেশমাত্র নেই। তার উপর আবার হাসছেন!’

তারইমধ্যে ম্যাচের পর দারুণ খেলার জন্য পাকিস্তানের প্রশংসা করতে কুণ্ঠাবোধ করেননি বিরাট। তিনি বলেন, ‘যেভাবে বিষয়গুলি পরিকল্পনা করেছিলাম, তা প্রয়োগ করতে পারিনি। কিন্তু কৃতিত্ব প্রাপ্য পাকিস্তানের। ওরা আজ আমাদের পুরো উড়িয়ে দিয়েছে।

যখন ২০ রানের মধ্যে তিন উইকেট চলে যায়, তখন সেই ম্যাচে ফিরে আসা অত্যন্ত কঠিন হয়। বিশেষত আপনি জানেন যে শিশির পড়তে শুরু করবে। ব্যাটিংয়েও ওরা একেবারে পেশাদারিত্বের পরিচয় দিয়েছে।’

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *