সবাইকে অবাক করে অবসরের ঘোষণা দিতে যাচ্ছেন হার্দিক পান্ডিয়া

বহু দিন ধরেই পারফরম্যান্স নেই হার্দিক পাণ্ডিয়ার। এর জন্য তাঁর চোটও বড় কারণ। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দলে তাঁকে রাখা নিয়ে বহু বিতর্ক হয়েছে। সে ভাবে পারফরম্যান্সও করতে পারেননি হার্দিক।

এমন কী এর পর নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে টি-টোয়েন্টি সিরিজের দল থেকে বাদ পড়েছেন তিনি। সংক্ষিপ্ত ওভারের ক্রিকেটেই তিনি সুযোগ পাচ্ছেন না। সেখানে টেস্ট ক্রিকেট তো শেষ বার হার্দিক খেলেছিলেন ২০১৮ সালে। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে।

লাল-বলের ক্রিকেটে তাঁর ফেরার সম্ভাবনা অত্যন্ত ক্ষীণ হয়ে এসেছে। যে কারণে সাদা বলের ক্রিকেটেই পুরো মনোযোগ দিতে চান হার্দিক। আর তাই টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার কথা ভাবছেন হার্দিক।

ইনসাইডস্পোর্টকে বোর্ডের এক কর্তা বলেছেন, ‘ও (হার্দিক) অনেক দিন ধরেই চোট সমস্যায় ভুগছে। যদিও আমাদের কাছে সরকারি ভাবে এখনও কিছুই জানায়নি। তবে ও টেস্ট থেকে অবসর নেওয়ার কথা ভাবছে। সেটা ওকে অবশ্য সাদা-বলের ক্রিকেটে ফোকাস করতে ওকে সাহায্য করবে। সে যাইহোক টেস্ট নিয়ে আমাদের পরিকল্পনায় আপাতত ও ছিল না। তবে এটাও ঠিক যে, এতে একটা বড় ক্ষতি হবে। তবে আমাদের ব্যাকআপ প্রস্তুত করতে হবে।’

বিশ্বকাপের পরই টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে হার্দিকের চোট নিয়ে রিপোর্ট চেয়েছিল বিসিসিআই। এমন কী চোট থাকলে রিহ্যাবের জন্য জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে যোগ দিতেও বলা হয়েছিল তাঁকে। বিশ্বকাপের পরেই ভারতীয় দল থেকে তাঁকে বাদ দেওয়া হয়। তাঁর ভবিষ্যৎ নিয়েও প্রশ্ন উঠে গিয়েছে।

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ভারতীয় টিমে তিনি সুযোগ পাবেন কিনা, সেটাও এখনও নিশ্চিত নয়। তবে হার্দিক বিজয় হাজারে ট্রফি খেলবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন।

বিজয় হাজারে ট্রফির আগে বরোদা ক্রিকেট সংস্থার তরফে একটি ই-মেল করে তাঁর থেকে জানতে চাওয়া হয়েছিল, তিনি এই টুর্নামেন্টে খেলবেন কিনা। যার উত্তরে হার্দিক লিখেছেন, মুম্বইয়ে আপাতত রিহ্যাব করছেন তিনি।

আর এতেই পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে হার্দিকের চোট এখনও সারেনি। স্বভাবতই দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের জন্য তাঁকে দলে রাখার কোনও যুক্তিও নেই। যদিও হার্দিকের জায়গা পূরণ করতে শার্দুল ঠাকুরের পাশাপাশি ভেঙ্গটেশ আইয়ারকেও নিয়েও ভাবনাচিন্তা করছে নির্বাচকেরা।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *