রোহিতকে নয়, অধিনায়কের দায়িত্ব যাকে দিতে চেয়ে ছিল কোহলি

আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর টি-টোয়েন্টির অধিনায়কত্ব ছেড়ে দিবেন বিরাট কোহলি। তবে খবর বেরিয়েছে নিজে সরে দাঁড়ানোর আগে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলের সহ-অধিনায়ক রোহিত শর্মাকে সরিয়ে দিতে চেয়েছিলেন ব্যাটিং গ্রেট কোহলি।

ক্রিকেট বিষয়ক সংবাদমাধ্যম ক্রিকট্রেকার বিসিসিআইয়ের একটি সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে কোহলি নিজে দেশটির নির্বাচকদের বলেছিলেন, রোহিত শর্মাকে বাদ দিয়ে ওয়ানডের সহ-অধিনায়ক হিসেবে লুকেশ রাহুলকে দায়িত্ব দিতে।

আর টি-টোয়েন্টিতে সহ-অধিনায়কের দায়িত্ব ঋসভ পন্তকে দিতে। কারণ হিসেবে তিনি নাকি বলেছেন রোহিতের বয়স হয়ে গেছে। তাই তরুণ কাউকে নেতৃত্ব দেয়া উচিত।

হার্ডহিটার ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মার বয়স এখন চলছে ৩৪। কিন্তু তার পারফরমেন্সে তার কোন প্রভাব পরেনি। আবার আইপিএলে তার নেতৃত্বে মুম্বাই ইন্ডিয়ানস পাঁচবার শিরোপা জয় করেছে। যেখানে কোহলি পুরোপুরি ব্যর্থ।

রোহিতকে সরিয়ে দিতে চাইলেও শেষ পর্যন্ত কোহলিকেই সরে দাড়াতে হলো। আর সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে এখন রোহিতের হাতেই আসবে নেতৃত্ব।

কয়েকদিন ধরেই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল কোহলি অধিনায়কত্ব ছাড়বেন। অবশেষে সেটি নিজেই জানিয়ে দেন তিনি।

এ ব্যপারে কোহলি তার পোস্টে লিখেন, ‘আমি অত্যন্ত ভাগ্যবান, শুধু ভারতের হয়ে খেলতে পেরে নয়, আমার সর্বোচ্চটা দিয়ে ভারতকে নেতৃত্ব দিতে পেরেও।

এই পথচলায় যারা আমার পাশে ছিলেন তাদের সকলকে ধন্যবাদ জানাই। তাদের ছাড়া আমি এটা করতে পারতাম না। খেলোয়াড়, কোচিং স্টাফ ও নির্বাচক কমিটির সকলকে ধন্যবাদ জানাই।’

‘কাজের চাপ অনেক বড় বিষয় এটি বুঝতে পেরে ও গত ৮-৯ বছর ধরে কাজের চাপের বিষয়টি দেখে, তিনটি ফরমেটেই গত চার পাঁচ বছর ধরে টানা খেলে আমি বুঝতে পেরেছি, আমার নিজেকে সময় দিতে হবে।

অধিনায়ক হিসেবে ওয়ানডে ও টেস্টের প্রতি বেশি মনযোগ দিতে হবে। আমি টি-টোয়েন্টির অধিনায়ক থাকা অবস্থায় আমি সর্বোচ্চটা দিয়েছি। এখন টি-টোয়েন্টিতে একজন ব্যাটসম্যান হিসেবে সামনের দিকে এগিয়ে যাব।’

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *