রেকর্ডের পর রেকর্ড, মাত্র ৩৩ রান তুলতেই ৯ উইকেট হারালো মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স

আগের ম্যাচে দীর্ঘদিন পর ফিফটির দেখা পেয়েছিলেন কোহলি। কিন্তু জয় পাওয়া হয়নি। এবার মুম্বাইয়ের বিপক্ষে ম্যাচেও সেই হারের শঙ্কা দেখা দিয়েছিল, তবে সেই শঙ্কা উড়িয়ে দিয়ে কোহলির মুখে হাসি এনে দিলেন হার্শাল প্যাটেল।

তার রেকর্ড গড়ক দুর্দান্ত হ্যাটট্রিকে মুম্বাইকে ৫৪ রানে হারিয়ে জয়ে ফিরল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর।

এদিন টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দারুণ করেছিলেন বিরাট। দেবদত্ত পাড়িক্কল শুরুতেই আউট হয়ে গেলেও শ্রীকর ভরতকে সঙ্গে নিয়ে দলের রান এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন আরসিবি অধিনায়ক।

২৪ বলে ৩২ রান করে রাহুল চাহারের বলে আউট হয়ে যখন ফিরছেন ভরত, তখনও ক্রিজে ছিলেন বিরাট। গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের সঙ্গে জুটি তৈরি করে বড় রানের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিল আরসিবি।

৫১ রান করে বিরাট আউট হলেও রান তোলার গতিতে লাগাম দিতে পারছিলেন না মুম্বাই বোলাররা। সেই সময়েই বল হাতে ম্যাচ ঘুরিয়ে দেন জশপ্রীত বুমরা।

দু’বলে দুটি উইকেট নিয়ে ফেরান ম্যাক্সওয়েল (৫৬) ও এবি ডিভিলিয়ার্সকে (১১)। আর এতেই কমে যায় রান তোলার গতি। শেষ পর্যন্ত ১৬৫ রানে শেষ হয় ব্যাঙ্গালোরের ইনিংস।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে হিসেব করে খেলতে শুরু করে মুম্বাই। প্রথম দুই ওভার দেখে খেলেন কুইন্টন ডি’ কক ও রোহিত শর্মা।

তবে তৃতীয় ওভারে কাইল জেমিসনের বলে তিনটি চার মেরে ওভার থেকে মোট ১৭ রান তুলে নেন মুম্বাই অধিনায়ক। প্রথম ৬ ওভারেই উইকেট না হারিয়ে ৫৬ রান করে ফেলে মুম্বাই।

তবে যুজবেন্দ্র চাহাল আসতেই আউট হন ডি’ কক। ডিপ মিডউইকেটের উপর দিয়ে বড় শট খেলতে গিয়ে ম্যাক্সওয়েলের হাতে ক্যাচ দেন চহাল।

সামনের দিকে ঝাঁপিয়ে ক্যাচ ধরেন তিনি। ঈশান কিশনকে সঙ্গে নিয়ে ইনিংস গড়ে তোলার চেষ্টা করতে থাকেন অধিনায়ক রোহিত।

তবে একদিক থেকে চাহাল আর অন্যদিক থেকে ম্যাক্সওয়েল রানের গতি থমকে দেওয়ায় চাপ বাড়তে থাকে তাঁর উপর। বড় শট খেলতে গিয়ে ম্যাক্সওয়েলের বলে দলীয় ৭৯ রানে আউট আউট হন রোহিত (৪৩)।

এরপরেই ধ্বস নামে মুম্বাই শিবিরে। পরের ওভারেই চহাল তুলে নেন ঈশানের উইকেট। মাত্র ৯ রান করে আউট হন তিনি। ৮ রান করে মোহম্মদ সিরাজের বলে আউট হন সূর্যকুমার যাদব।

হার্দিক আউট হন মাত্র তিন রান করে। হর্ষল প্যাটেলের স্ক্র্যাম্বেলড সিম বলে বড় শট খেলতে গিয়ে এক্সট্রা কভারে বিরাটের হাতে ক্যাচ দেন হার্দিক। পরের বলেই আউট কায়রন পোলার্ডও। বোল্ড হন তিনি।

পরের বলেই রাহুল চাহারকেও আউট করে হ্যাটট্রিক করেন হার্শাল প্যাটেল। মুম্বাইয়ের তৃতীয় বোলার হিসেবে আইপিএলে হ্যাটপ্রিকের রেকর্ড গড়েন হার্শাল।

এতেই ১১১ রানে শেষ গয় মুম্বাইয়ের ইনিংস। ফলে ৩৩ রান তুলতেই ৯ হারিয়ে ৫৪ রানের হার নিয়ে মাঠ ছাড়ে রোহিতরা।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর : ১৬৫/৬ (২০ ওভার)

ম্যাক্সওয়েল ৫৬, কোহলি ৫১, ভারত ৩২

বুমরাহ ৩৬/৩, বোল্ট ১৭/১

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স : ১১১/১০ (১৮.১ ওভার)

রোহিত ৪৩, ডি কক ২৪

হার্শাল ১৭/৪, চাহাল ১১/৩, ম্যাক্সওয়েল ২৩/২

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *