ফাইনালে গেলেও ১০ বছর আগের বড় ১টি লজ্জার রেকর্ড স্মরণ করিয়ে দিল KKR

পাঁচ থেকে আটে খেলতে নামা কলকাতা নাইট রাইডার্সের চার ব্যাটসম্যান ১০ বছর আগের লজ্জার এক নজিরকে আবার মনে করিয়ে দিল।

এ দিন দীনেশ কার্তিক, ইয়ন মর্গ্যান, শাকিব আল হাসান, সুনীল নারিন- পরপর চার জনের স্কোরই শূন্য। ডাক করে পরপর প্যাভিলিয়নে ফিরেছেন পাঁচ থেকে আটে খেলতে নামা এই চার ব্যাটসম্যান।

এর আগেও ২০১১ সালে এমন ভাবেই লাইন দিয়ে শূন্য রানে আউট হয়ে নজির গড়ে ফেলেছিলেন কোচি টাস্কার্স কেরালা।

ডেকান চার্জার্সের বিরুদ্ধে ম্যাচে তাদের ৫ জন ব্যাটসম্যান পরপর শূন্য করে সাজঘরে ফিরেছিলেন। সেই রেকর্ড স্পর্শ করতে না পারলেও, সেটাকে আরও একবার মনে করিয়ে দিয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স।

এ দিন ১২.২ ওভারে ৯৬ রানে ১ উইকেট থেকে ১৯.৪ ওভারে ১৩০ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে বসে থাকে কলকাতা। তার মধ্যে আবার ১৮-২০ ওভারের মধ্যে তারা চার উইকেট হারায়।

সেই চারটি উইকেটই দীনেশ কার্তিক, ইয়ন মর্গ্যান, শাকিব আল হাসান, সুনীল নারিনের। সে সময় কিন্তু সব মিলিয়ে খুব চাপেই পড়ে গিয়েছিল কলকাতা। শেষ পর্যন্ত ম্যাচ জিতে স্বস্তি পেয়েছে শাহরুখ খানের টিম।

বুধবার টসে জিতে দিল্লিকে ব্যাট করতে পাঠিয়েছিল কলকাতার অধিনায়ক ইয়ন মর্গ্যান। প্রথমে ব্যাট করে ৫ উইকেটে ১৩৫ রান করে দিল্লি।

শেষ ২ বলে ৬ রান করতে হত কলকাতাকে। আগের দু’টি বলে দুই উইকেট হারিয়েছিল তারা।

সেখান থেকে চাপের মধ্যেও ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে ১৯.৫ ওভারে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের বলে ছক্কা হাঁকিয়ে কলকাতাকে জিতিয়ে দেন রাহুল ত্রিপাঠি। তিনি হয়ে যান বাজিগর। সেই সঙ্গে আইপিএল থেকে ছিটকে যায় দিল্লি ক্যাপিটালস।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *