“পিএসজির জয়” নতুন সতীর্থদের সঙ্গে নিয়ে লিওনেল মেসির লীগ ওয়ানে গোলের ‘অভিষেক’

নতুন পরিবেশ নাকি সতীর্থদের সঙ্গে বোঝাপড়ার অভাব? সে যাই হোক, গত ৩০শে আগস্ট অভিষেক হলেও পিএসজির জার্সিতে লীগ ওয়ানে গোলের দেখা পাচ্ছিলেন না লিওনেল মেসি। লা প্যারিসিয়ানদের হয়ে ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের আসরে গোলের দেখা পেয়ে গেলেও ফরাসি লিগে গোল মেসির জন্য যেন হয়ে উঠেছিলো ‘অমাবস্যার চাঁদ’।

অবশেষে ফরাসি লিগ এলো সেই মাহেন্দ্রক্ষণ। গোলের দেখা পেয়ে গেলেন আর্জেন্টাইন মহাতারকা। ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলারের লিগ ওয়ানে গোলের ‘অভিষেক’ হওয়ার দিন পিএসজিও পেয়েছে কষ্টার্জিত জয়।

গত (শনিবার) ফরাসি লিগ ওয়ানে নঁতের বিপক্ষে ম্যাচটি ৩-১ গোলে জিতেছে পিএসজি। ফরাসিদের হয়ে কিলিয়ান এমবাপ্পে ও লিওনেল মেসি একটি গোল করেন। বাকি গোলটি আসে আত্মঘাতী। দ্বিতীয়ার্ধে সফরকারীদের হয়ে এক গোল শোধ করেন কোলো মাউনি।
ঘরের মাঠে এদিন শুরু থেকেই ছিল পিএসজির ত্রয়ীর সেরা তিন তারকা লিওনেল মেসি, কিলিয়ান এমবাপ্পে ও নেইমার জুনিয়র। দলের সেরা তিন তারকাকে এক সাথে পেয়ে শুরু থেকেই আক্রমণের পসরা সাজায় পিএসজি। যার ফল পেতে সময় লাগে মাত্র দু মিনিট। ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই লিওনার্দো প্যারদেসের পাস থেকে দলকে এগিয়ে দেন দারুণ ফর্মে থাকা কিলিয়ান এমবাপ্পে। প্রথমার্ধে একের পর আক্রমণ করেও আর গোলের দেখা পায়নি স্বাগতিকরা। বিরতির পর মাঠে ফিরে নিজেদের মেলে ধরার চেষ্টা করে নঁতে। নিজেদের রক্ষণ ঠিক রেখে আক্রমণও শানায় দলটি। সফরকারীদের দারুণ কিছু আক্রমণে ৬৫তম মিনিটে বড় ভুল করে বসে পিএসজি। মেসিদের প্রতি-আক্রমণে দারুণ ক্ষিপ্রতায় এগিয়ে যান ব্লাঁস।

তাকে রুখতে বক্সের বাইরে বেরিয়ে এসে কী বুঝে লাফিয়ে প্রতিপক্ষকে ফাউল করে বসেন পিএসজির গোলরক্ষক কেইলর নাভাস। সঙ্গে সঙ্গে কোস্টা রিকার এই গোলরক্ষককে লাল কার্ড দেখান রেফারি। ম্যাচের নির্ধারিত সময়ের ২৫ মিনিট আগেই ১০ জনের দলে পরিণত হয় স্বাগতিকরা। পরে নেইমারকে তুলে তৃতীয় পছন্দের গোলরক্ষক সের্হিও রিকোকে নামান কোচ।

বদলি গোলরক্ষকে শুরুটা ভালোই হয়েছিল। বেশ কিছু দারুণ সেভ দিয়ে স্বাগতিকদের রক্ষাও করেছিলেন। কিন্তু, দশ মিনিট পর আর পারলেন না। ম্যাচের ৭৬তম মিনিটে ব্যাকহিলে দারুণ এক গোল করে সফরকারী দলকে সমতা ফেরান কোলো মাউনি। পয়েন্ট হারানোর শঙ্কা জাগে পিএসজি শিবিরে। কিন্তু, পাঁচ মিনিট পরই ভাগ্যের জেরে কপাল খুলে স্বাগতিকদের। ম্যাচের ৮১তম মিনিটেই ডি-বক্সে বাঁ দিকে সতীর্থের উদ্দেশ্যে বল বাড়ান মেসি, স্লাইডে সেটাই আটকাতে গিয়ে নিজেদের জালে পাঠান নঁতের ডিফেন্ডার দেনিস আপিয়া। ২-১ গোলে এগিয়ে যায় পিএসজি।

ফরাসিরা এগিয়ে যাওয়ার ছয় মিনিট পর অপেক্ষা ফুরায় মেসিরও। ম্যাচের ৮৬তম মিনিটে কিলিয়ান এমবাপ্পেরর পাস থেকে সামনের একজনকে কাটিয়ে বাঁ দিকে একটু আড়াআড়ি গিয়ে বাঁ পায়ের পছন্দের শটে দলের জয় নিশ্চিত করে ফেলেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। প্রথমবারের মতো লীগ ওয়ানে গোলের দেখা পেলেন ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলার। বাকি সময় আর কোন গোল না ৩-১ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে স্বাগতিকরা। এই জয়ে ১৪ ম্যাচে ১২ জয় ও এক ড্রয়ে ৩৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান পাকাপোক্ত হরল পিএসজি। ১৩ ম্যাচে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে লস। ১৪ ম্যাচে ষষ্ঠ হারে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে ১১ নম্বরে আছে নঁতে।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *