পাকিস্তানের অলিগলির বাচ্চা বোলারদের সাথে তুলনা করলেন বরুনের মতো বাঘা বোলারকে: সালমান

ভারতের মিস্ট্রি স্পিনার হিসেবে বিবেচনা করা হয় বরুন চক্রবর্তীকে। আইপিএলে অনেক বাঘা বাঘা বোলারকে কুপোকাত করে জাতীয় দলে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। অথচ সেই বরুনকেই পাকিস্তানের গলির বোলারদের সাথে তুলনা করছেন সালমান বাট।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানের কাছে পাত্তাই পায়নি ভারত। ১০ উইকেটে ভারতকে হারিয়ে রীতিমতো ইতিহাস রচনা করেছে পাকিস্তান। জয়ের ব্যবধানই বলে দেয়, সেই ম্যাচে উইকেটশুন্য ছিলেন ভারতের বোলাররা।

বরুন চার ওভার বোলিং করে ৩৩ রান দেন। তাঁর এমন পারফরম্যান্স দেখে কটাক্ষ করতে ভোলেননি সালমান। পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক রীতিমত ধুয়ে দিয়েছেন বরুনকে।

সালমান বলেন, ‘বরুণ চক্রবর্তীর মতো স্পিনার পাকিস্তানের কাছে কোনো সারপ্রাইজ ছিল না। অন্য কোনো দলের কাছে সারপ্রাইজ হলে সেটা আলাদা ব্যাপার। তবে পাকিস্তানে অলিগলিতে বরুণ চক্রবর্তীর মতো বোলার পাওয়া যায়। আমাদের দেশে অলিগলিতে বাচ্চারা ফিঙ্গার ট্রিকস ব্যবহার করে বোলিং করে। এটা কোনো নতুন ব্যাপার নয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘বল ভ্যারিয়েশন তো বড় কোনো ব্যাপার নয়। আমাদের দেশের অলিগলিতে বোলাররা আলাদা আলাদা ভ্যারিয়েশন করে। আইপিএলে বরুণ যেভাবে কার্যকরী হয়েছে সেটা পাকিস্তানের বিরুদ্ধে হওয়া সম্ভব ছিল না। হয়ওনি।’

নিকট অতীতেও সাঈদ আজমল, দানিশ কানেরিয়া, শহিদ আফ্রিদি ও সাকলাইন মুশতাকদের মতো দারুণ সব স্পিনার দলে পেয়েছে পাকিস্তান। সেই সুবাদে পাকিস্তান দলের প্রতিটি জেনারেশনের ব্যাটাররা স্পিন মোকাবেলায় দক্ষ।

এই প্রসঙ্গে সালমান বলেন, ‘অজন্তা মেন্ডিসের মতো বোলারাও পাকিস্তানের ব্যাটারদের বিরুদ্ধে সুবিধা করতে পারেনি। আসলে আমরা স্পিন বৈচিত্র্যতা দেখেই বড় হয়েছি। বরুণ যে ভ্যারিয়েশন ব্যবহার করে সেগুলো অনেক দেখা যায়। সাধারণ। বরুণ নিজে পাকিস্তান ম্যাচের ভিডিও দেখুক। ও বুঝতে পারবে, পাকিস্তানের ব্যাটাররা ওকে কতটা সহজে খেলেছে!

আসলে, স্পিন বৈচিত্র্যতাতে পাকিস্তানকে কেও ছোট করে দেখার কোন সুযোগ নাই। আর এই বৈচিত্র্য আজ নতুন নয়, বহু জুগ হতে চলে আসছে। আগামিতে আরও নতুন নতুন মুখ দেখবে পুরো বিশ্ব।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *