কোহলিকে অধিনায়কত্ব থেকে বাদ দেওয়ার পর বোর্ডে বিরুদ্ধে বড় ১টি অভিযোগ দায়ের করলো রবি শাস্ত্রী

বোর্ডের উপর ফের ক্ষোভ উগড়ে দিলেন ভারতীয় দলের প্রাক্তন কোচ রবি শাস্ত্রী। পাঁচ বছর আগেকার প্রসঙ্গ তুলে আনলেন তিনি। রবি শাস্ত্রীর সঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সম্পর্ক কতটা খারাপ তা যেন চোখে আঙুল দিয়ে আবারও বোঝালেন।

এক সাক্ষাৎকারে শাস্ত্রী বলেছেন, ভারতীয় বোর্ডে অনেকেই তাঁকে কোচ হিসাবে চাননি। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরে শাস্ত্রী ভারতীয় দলের প্রধান কোচের পদ থেকে সরে গিয়েছেন। তার পরেই তিনি মুখ খুলতে শুরু করেছেন।

২০১৬ সালে ভারতীয় দলের প্রধান কোচ হওয়ার দৌড়ে ছিলেন রবি শাস্ত্রী। কারণ তার আগে শাস্ত্রী ভারতীয় দলের ডিরেক্টর হিসেবে কাজ করেছেন।

কিন্তু সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, সচিন তেন্ডুলকর এবং ভিভিএস লক্ষ্মণের ক্রিকেট উপদেষ্টা কমিটি অনিল কুম্বলেকে কোচের দায়িত্ব দেয়। শাস্ত্রী বলেন,

‘আমাকে বলা হয়েছিল ধারাভাষ্যের কাজ ছেড়ে দিতে। ছেড়ে দিয়েছিলাম। আরও অনেক কিছু ছেড়ে ভারতীয় দলের সঙ্গে যুক্ত হয়েছিলাম। কিন্তু হঠাৎ আমাকে কোনও কিছু না বলে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল। হঠাৎ জানতে পেরেছিলাম। কেউ আমাকে কিছুই বলেনি।’

এর পরে তিনি আরও বলেন, ‘খুব খারাপ লেগেছিল তখন। আমাকে যদি পছন্দ না হয়, সেটা বলতে পারত। যাই হোক, আবার ধারাভাষ্যের কাজ শুরু করেছিলাম। নয় মাস পরে যখন ফিরে এলাম, আমাকে বলা হয়, দলের ভিতর গোলমাল রয়েছে।

শুনে অবাক হয়ে গিয়েছিলাম। যখন দলটাকে ছাড়তে হয়েছিল, তখন কোনও সমস্যা ছিল না। মাত্র ন’ মাসে সব বদলে গিয়েছিল! আরও অবাক হয়েছিলাম এটা ভেবে যে, নয় মাস আগে যাকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল, তাকেই আবার দায়িত্ব দেওয়া হল।’

এরপরে আবারও দলের দায়িত্ব নিয়েছিলেন তিনি। তবে এবার দলের কোচের পদ থেকে সরে যেতেই অতীতের সব গল্প তুলে ধরছেন রবি শাস্ত্রী।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *